কষ্টের ভালোবাসা। emotional Love story in bangla। 
আমি রৈসন আজ একটি কষ্টের ভালোবাসার গল্প জানাবো যেটা বাস্তবে সত্যি  bangla love story ।।
গল্পের লেখক রৈসন
পরুন সোহাগ আর আখীর ভালোবাসার গল্পটি।




(ছেলেটির নাম সোহাগ এবং মেয় টির নাম আখী)

সোহাগ  ও আখী  একই কলেজে পড়াশুনা করে,তাই সোহাগ ও আখী খুব ভালো বন্ধু।
সোহাগ সকালে আখী-কে  ফোন দিল।
সোহাগ -- ইশিতা বন্ধু  তুই কি আজ কলেজে যাবি।
আখী -- হুম কেনো রে,
সোহাগ --  তাইলে একসাথে যেতাম।
আখী -- ঠিক আছে,
এইভাবে সোহাগ ও আখীর বন্ধুত ভালোই চলছিল।
সোহাগ সব সময় আখীকে ফোন দিত।
এইভাবে চলতে চলতে সোহাগ আখীকে খুব ভালোবেসে ফেলে।
সোহাগ একদিন সকালে নিজের রুমে বসে বসে ভাবছে আখীর কথা,এমন সময় আখী সোহাগকে ফোন দেয়,
আখী -- কিরে কুত্তা কি করিস।
সোহাগ -- তোর কথা ভাবছিরে,আচ্ছা আখী একটা কথা বলবো তোকে শুনবি।
আখী--  হুম বল,কি বলবি
সোহাগ --  তোকে খুব ভালোবাসিরে,আমার পথ চলার সাথি হবি,
আখী রাগ করে ফোন রেখে দেয়।সোহাগ খুব কষ্ট পায়। তারপরে ১৫ দিন আখী সোহাগ এর ফোন ধরেনা, কথা বলেনা সোহাগ এর সাথে। এদিকে সোহাগ এর খুব কষ্ঠ হচ্ছে।
কিছুদিন পরে সোহাগ আখীকে একটা ছেলের সাথে পার্কে  ঘুরতে দেখলো ,সোহাগ কিছু না বলে বাসায় চলে আসল।রাতে আখী সোহাগকে ফোনদেয়,
আখী -- সোহাগ তোকে আমি ফেরন্ড এর থেকে বেশি কিছু ভাবিনা,
সোহাগ -- কান্না করে বলে আখী তোকে ছাঁড়া আমি বাঁচবো না ।
এই কথা শুনার পরে আখী সোহাগকে খুব অপমান করে।সোহাগ কিছু বলেনা।তার পরে ৫ দিন কেউ কাউকে ফোনদেয়না।
একদিন সোহাগ এর খুব জ্বর হয়,সোহাগ আখীকে ফোনদেয়,
সোহাগ -- আখী আমার খুব জ্বর, কি ঔষুধ খাবরে,
আখী -- যা মন চায় তাই খা আমাকে বিরক্ত করবিনা
সোহাগ খুব কষ্ট পায় এবং ওই রাতেই ৮টা ঘুমের ঔষুধ খেয়ে মারা যায়।সোহাগ মারা যাওয়ার আগে একটা চিঠি লিখে যায়, এবং সেটা আখীকে দিতে বলে যায়।তার পরের দিন আখী কি মনে করে যেন  সোহাগদের বাসায় আসে।কিন্তুু বাসার সামনে এসেই দেখে সোহাগ এর মা -  বাবা কান্না করছে। আখী কিছুই বুঝতে পারেনা। ঠিক তখনই সোহাগ এর ছোটো বোন  সোহাগ এর রেখে যাওয়া চিঠিটা আখীর হাতে  দেয়। আখী বুঝতে পেরে এক দোড় দিয়ে কবর স্থানে আসে। তখন সোহাগকে কবর দেওয়া শেষ।আখী কান্না করতে  থাকে আর চিঠিটা পড়তে থাকে,
সোহাগ --  কিরে পাগলি ভালো থাকিস, তুই হয় তো আমার কবরের পাসে কান্না করছিস,কান্না করিস না,এইযে দেখ আমি আছিতো তোর কাছে,তোর মাঝে,তুইতো আমাকে ভালোবাসলিনা তাই নিজেই তোর কাছ থেকে চিরতরে বিদায় নিলাম।
আখী কান্না করছে আর বলছে, সোহাগ তোকে খুব ভালোবাসিরে । আমাকে একা করে চলে গেলি। আখীর কোন কথা সোহাগ আজ শুনতে পাচ্ছেনা কারন সোহাগ যে আার উঠবেনা।

Post a Comment

please do not any spam link in the comment box .

Previous Post Next Post